Today is  
 
Untitled Document
শিরোনাম : ||   ‘ভোট–রাজনীতি’ চর্চায় শিল্পীরা      ||   প্রয়াত চিত্রশিল্পী ফরিদ চৌধুরী ছিলেন গুনি ও জাতীয় মাপের শিল্পী      ||   রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিবেশের অপুরণীয় ক্ষতি হয়েছে-ছাবের হোসেন চৌধুরী      ||   রোহিঙ্গা প্রত্যাবসনের গতি কমে আসছে      ||   শিশু নির্যাতনকারীদের ছাড় নয়: প্রধানমন্ত্রী      ||   সৈকতকে পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে-মো: শাহাব উদ্দিন      ||   জেলায় শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মবার্ষিকী      ||   শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মদিন আজ      ||   টেকনাফে বিজিবি’র সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দু’রোহিঙ্গা নিহত      ||   বাংলাদেশে ক্রিকেট সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা নয়!      ||   রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবেশের জন্য কাজ করছে সরকার- সাবের হোসেন চৌধুরী      ||   তামিম আহত      ||   কুছ কুছ হোতা হ্যায়: কিছু না জানা তথ্য      ||   বাবার কাছে লেখা টুম্পার শেষ চিঠি      ||   ফিফা প্রেসিডেন্ট ইনফান্তিনো ঢাকায়     
প্রকাশ: 2019-10-17     ডেস্ক নিউজ চট্রগ্রাম

‘প্রিয় বাবা, তোমার শূন্যতা খুব বেশি অনুভব করছি। সকালে জেগে ওঠার জন্য এখন আর কেউ বকাবকি করে না। বাড়ির যে গাছগুলোতে রোজ পানি ছিটিয়ে সজীব করে রাখতে তুমি, তারাও এখন খুব বিষণ্ন, নির্জীব। ট্রাফিক সিগনালে লালবাতি জ্বলে উঠলে যে ভিখারীটি গাড়ির কাচের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকে, সেও তোমার বেশ অভাববোধ করছে। আমি, আমরা সবাই তোমার অপেক্ষায় দিন গুনছি। বাবা, আমি তোমাকে অনেক ভালবাসি। তুমি ফিরে এসো বাবা। একবার আমি তোমাকে ড্যাড বলে ডাকতে চাই-ফৌজিয়া সুলতানা টুম্পা’।

চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী এক-এগারোর সময় গ্রেফতারের পর কারাগারে থাকাকালীন সময়ে মেয়ে ফৌজিয়া সুলতানা টুম্পা বাবার কাছে লিখেছিলেন এই চিঠি।

মরহুম মহিউদ্দীন চৌধুরীর ছেলে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রিয় বোন টুম্পা'র ১১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে তুলে ধরেছেন সেই চিঠি। লিখেছেন-‘জনকের প্রতি আবেগঘন উষ্ণতা মেখে আমার আদরের ছোট বোন অভিমানী ফৌজিয়া সুলতানা টুম্পার জীবনের প্রথম এবং শেষ চিঠি’।

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী ছিলেন টুম্পা। ২০০৮ সালের ১৭ অক্টোবর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান।বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন বলেন, টুম্পা অনেক সাধাসিধে ছিল। তার বাবা মেয়র- এই বিষয়টি আমরা অনেকেই জানতাম না। এক-এগারোর সময় এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী গ্রেফতার হলে জানতে পারি টুম্পা তার মেয়ে।

ড. অনুপম সেন বলেন, টুম্পা তার মৃত্যুর আগে পিতার সঙ্গে শেষ দেখা করতে পারেনি। সেদিন তত্ত্বাবধায়ক সরকার টুম্পার বাবার প্রতি নির্দয় আচরণ করে। টুম্পাকে দেখার জন্য তাকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়নি। এমনকি তিনি মুক্তি পাওয়ার পরও ব্যাংককে যেতে সরকার তালবাহানা করে যাত্রা বিলম্বিত করেছিল। শেষ পর্যন্ত চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বসেই তিনি টুম্পার মৃত্যু সংবাদ পান। এটা শুধু মহিউদ্দিন চৌধুরীর জন্য নয়, আমাদের সকলের জন্য একটি মর্মান্তিক ট্র্যাজেডি।


চট্রগ্রাম
বাবার কাছে লেখা টুম্পার শেষ চিঠি

হাইকোর্টে স্থগিত ড. ইউনূসের গ্রেফতারি পরোয়ানা

৪৫ রোহিঙ্গা আটক

রোহিঙ্গাদের চলাফেরা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সেনাবাহিনী কাজ করছে: সেনা প্রধান

চট্টগ্রামে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন প্রতিমাশিল্পীরা

ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা: ইসি কর্মকর্তা শাহানুর আটক

ক্লাবের নামে জুয়ার আসর বসানো যাবে না: মেয়র নাছির

রোহিঙ্গাদের হাতে এনআইডির নেপথ্যে সেই ‘জকরিয়া চক্র’

রোহিঙ্গাদের এনআইডি করার অপরাধে আটক ৩

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন: ১৫ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা

 

উপদেষ্টা সম্পাদক: আবু তাহের
সম্পাদক: বিশ্বজিত সেন
প্রকাশক: আবদুল আজিজ

 

কক্সবাজার প্রেসক্লাব ভবন (২য় তলা),
শহীদ সরণি (সার্কিট হাউস রোড), কক্সবাজার।
ফোন:
০১৮১৮-৭৬৬৮৫৫, ০১৫৫৮-৫৭৮৫২৩।


ইমেইল :

news.coxsbazarvoice@gmail.com
  Copyright © Coxsbazarvoice 2019-2020, Developde by JM IT SOLUTION