Today is  
 
Untitled Document
শিরোনাম : ||   আইসিজে'র তিন সদস্যের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন      ||   ‘কক্সবাজারের বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি’      ||   রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গলায় ফাঁস লাগিয়ে এক কিশোরীর আত্মহত্যা      ||   উখিয়ার উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন মো:শফিউল আলম      ||   উপবন পর্যটন লেকে কাটা হচ্ছে পাহাড়: দেখার কেউ নেই      ||   জিয়া ছিলেন মোশতাকের সবচেয়ে বিশ্বস্ত: প্রধানমন্ত্রী      ||   রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিব্রত নির্বাচন কমিশন      ||   শুরুটা ভালো হলো না রানীর      ||   বরিসকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন: রোহিঙ্গা ইস্যুতে সমর্থন চাইলেন      ||   শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী      ||   টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আলোচিত নুর হাফিজ ও সোহেল নিহত      ||   রামুতে বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ      ||   আজ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস      ||   ‘ইউএনও’ ফুটবল টুর্নামেন্টে জালিয়াপালং বাছাই একাদশ চ্যাম্পিয়ন      ||   খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির লাফালাফি ঠিক নয়-আইনমন্ত্রী     
প্রকাশ: 2019-12-14     নুরুল আলম সাঈদ, নাইক্ষ্যংছড়ি বান্দরবান

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার নয়নাভিরাম উপবন পর্যটন কেন্দ্র লেকের উচু-নিচু পাহাড় গুলো অব্যাহত কর্তনের ফলে সুর্ন্দয বিলীন হতে যাচ্ছে । স্থানীয় ও বহিরাগত কিছু ভূমিদুস্যু কর্তৃক নির্বিচারে পাহাড় ও গাছ কাটাঁর ফলে পর্যটন লেকের অপরূপ সৌন্দর্য্য দিন কমে আসছে । 

পর্যটন লেক ও যৌথ খামার এলাকায় দীর্ঘ ১যুগের অধিক সময় ধরে বসবাস করছে এমন ব্যক্তিদের অভিযোগে জানা যায়,-স্থানীয় কিছু ভূমিদুস্য পর্যটন লেক ও যৌথ খামারের সরকারী খাস জমিতে বেড়েঁ উঠা গাছ এবং ওই এলাকার পাহাড় কাটঁছে দিনে-রাতে সমান তালে । যৌথ খামার এলাকায় মসজিদ ঘোনার রাম শিং’র বাড়ীর পার্শ্বে সরকারী একটি পাহাড়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ের মাস্টার  রুলে কর্মরত পিয়ন লক্ষন দে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে দিনে-রাতে পাহাড়ঁ কাটছে । এই ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দা নাগুর ছেলে ইউসুপ,ফরিদ আহমদের স্ত্রী রশিদা বেগম ও স্থানীয় দর্জি মনচুরসহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেও কোন সুরাহা পায়নি বলে অভিযোগে জানান । 

জানা যায়, পিআইও অফিসের পিয়ন লক্ষন দে ক্ষমতার জোর কাটিঁয়ে যৌথ খামারের রাম শিং এর বাড়ীর পার্শ্বের একটি বিশাল পাহাড় কাটঁছে দিনে রাতে । নিজে থাকার জন্য বাড়ী নির্মাণের জন্য ওই স্থানের অনেক ছোট বড় গাছ গুলি কেটেঁ ফেলেছে লক্ষন দে। স্থানীয়রা পাহাড় কাটঁতে বাধাঁ দিলে লক্ষণ দে বলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আদেশে আমি এই জায়গার  মাটি কাটঁছি ।  লক্ষন দে সামান্য মাস্টার রুলের পিয়ন হলেও তার হাক-ডাক যেন তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বড় হর্তা-কর্তা । লক্ষন মাস্টার রুলের পিয়ন হলেও থাকছেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তাদের কোয়াটার বনরূপায় । 

নাইক্ষ্যংছড়ি হরি মন্দির এলাকার বাসিন্দা দক্ষ মোহন বলেন,-লক্ষন আমাকে বলে আপনার নাম উপকারভোগীদের তালিকায় দেয়া হয়েছে । আপনি স্বাক্ষর করবেন টিন ও ৩ হাজার টাকা বুঝে পেয়েছেন । কিন্তু আপনি টিন পাবেন টাকা গুলি আমার অফিসার ও অফিসের খরচের জন্য । এই রকম একাধিক অভিযোগ রয়েছে লক্ষন দে ও পিআইও’র বিরুদ্ধে । 

এই ব্যাপারে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন,-লক্ষনের পাহাড় কাটাঁর বিষয়টি আমি অবগত নই । এই বিষয়ে আমি কিছু জানি না । 

ঘটনাস্থলে পাহাড় কাটাঁর ছবি তোলতে গেলে লক্ষন কৌশলে মোবাইল বন্ধ করে পালিয়ে যায় । এছাড়া নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার হাসপাতাল এলাকায় তাহের নামে এক ব্যক্তির নিজের ছোট ভাই’র দাপট দেখিয়ে পাহাড় কেটেঁ বাসা-বাড়ি ও দোকান ঘর নিমাণ করলেও প্রশাসন কোন প্রকার ব্যবস্থা নিচ্ছে না । এই ব্যাপারে এলাকাবাসী ও সচেতন মহলের অভিমত প্রশাসন খুটিঁর জোর বুঝে ব্যবস্থা নেয় । না হলে পিআইও অফিসের লক্ষন দে ও তাহের’র পাহাড় কাটাঁর জন্য শাস্তি হতো । 



বান্দরবান
উপবন পর্যটন লেকে কাটা হচ্ছে পাহাড়: দেখার কেউ নেই

একটি সংযোগ সড়ক পাল্টে দিতে পারে কচ্ছপিয়ার ১৪টি গ্রামের চিত্র

উপবণ পর্যটন লেকের গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির বেহাল দশা

নাইক্ষ্যংছড়ি ‘বিএডিসি’ কার্যালয়ে বসে জোয়ার আসর

একটি ব্রীজই পাল্টে দিতে পারে ৭ গ্রামের জীবন চিত্র

ঘুমধুম সীমান্তে মাইন বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা যুবক নিহত

নাইক্ষ্যংছড়িতে রাস্তার উপর খুঁটি এখনো সরানো হয়নি: সর্বত্র ধিক্কার

নাইক্ষ্যংছড়িতে রাস্তার উপর ঢালাই করা খুঁটি!

লামায় বন্য হাতি হত্যার ঘটনায় মামলা

ঘুমধুম সীমান্তে বিজিবির ২ সদস্য গুলিবিদ্ধ

 

উপদেষ্টা সম্পাদক: আবু তাহের
সম্পাদক: বিশ্বজিত সেন
প্রকাশক: আবদুল আজিজ

 

কক্সবাজার প্রেসক্লাব ভবন (২য় তলা),
শহীদ সরণি (সার্কিট হাউস রোড), কক্সবাজার।
ফোন:
০১৮১৮-৭৬৬৮৫৫, ০১৫৫৮-৫৭৮৫২৩।


ইমেইল :

news.coxsbazarvoice@gmail.com
  Copyright © Coxsbazarvoice 2019-2020, Developde by JM IT SOLUTION